বিনোদনভাইরালভিডিও

বুকে হাত রেখে কিভাবে মিথ্যে বলতে পারি ! সুশান্ত ও ড্রাগস নিয়ে মুখ খুললেন অক্ষয় কুমার

অভিনেতা সুশান্ত সিংয়ের মৃত্যু হয়েছে কয়েক মাস কেটে গেলেও যত দিন যাচ্ছে ততই জটিল হচ্ছে মৃত্যু রহস্য। ইতিমধ্যেই সুশান্ত মৃত্যুর তদন্তে মাদকের যোগসূত্র মেলে। মাদককান্ড সামনে আসার পর বলিউডের এক অন্ধকার জগতের পর্দা উঠে যায়। এক এক করে নামজাদা তারকাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়, গ্রেফতার হন সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী। এই মাদককাণ্ডে দিনেদিনে নাম জড়াচ্ছে বহু সেলেব্রিটিদের। সারা আলী খান থেকে দিপীকা পাডুকোনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে,বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে তাদের মোবাইল।

অনেকেই বলিউডের এই মাদককান্ড নিয়ে অনেকই মন্তব্য করেছেন। কিন্তু এতদিন কোনো রকম মন্তব্য করেননি অক্ষয় কুমার। অবশেষে তিনিও মুখ খুললেন। গত ১৪ই জুন সুশান্ত সিংহ রাজপুতের নিজের ফ্ল্যাট থেকেই উদ্ধার হয় তার ঝুলন্ত দেহ। কিন্তু সুশান্তের মত একজন অভিনেতা আত্মহত্যা করবেন এটা মেনে নিতে পারেনি সুশান্তের ফ্যানেরা। সুশান্তের মৃত্যু আত্মহত্যা নয় খুন এই দাবি নিয়ে সরব হয় গোটা দেশ, শুরু হয় তদন্ত। আত্মহত্যা নাকি খুন এই তর্কবিতর্কের মধ্যেই AIIMSএর রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসে।

অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সুধীর গুপ্তর মন্তব্য করেন খুন নয় আত্মহত্যাই করেছেন প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত।এর পরেই সুশান্ত মৃত্যু ও বলিউডে মাদক যোগাযোগ প্রসঙ্গ নিয়ে মুখ খুলেছেন অক্ষয় কুমার।

নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। ভিডিওতে অক্ষয় বলেছেন অনেকদিন ধরেই কিছু কথা বলবেন ভাবছিলেন কিন্তু কিভাবে বলবেন ভেবে পাচ্ছিলেন না। ভিডিওতে অক্ষয় আরো বলেন “আমরা তারকা হই আপনাদের জন্য,আপনারা পছন্দ করেই আমাদের এই জায়গায় পৌঁছে দিয়েছেন। তবে, হ্যাঁ ড্রাগস সত্যি একটি গম্ভীর সমস্যা। বলিউডে যে ড্রাগস যোগ নেই তও বলা যায়না। তবে কিছু লোকের জন্য গোটা বলিউডকে অপরাধীর চোখে দেখাটা ঠিক না”।

এরপর তিনি মিডিয়ার উদ্দেশ্যে বলেন “মিডিয়ার কাছে আমি অনুরোধ করছি, দয়া করে কারোর সম্পর্কে ভুল খবর ছড়াবেন না। একটি নেগেটিভ খবর কারোর সারাজীবনের অর্জিত সন্মান এক মুহূর্তে কেড়ে নিতে পারে। সুতরাং সেদিকটায় একটু নজর দেবেন। রহস্য মৃত্যুর তদন্ত চলছে, এবং আমার নিজের দেশের ন্যায় ব্যবস্থা ও তদন্তকারী এজেন্সী CBI ও NCB উভয়ের ওপর যথেষ্ট ভরসা আছে।তাদেরকে কাজ করতে দিন।”

প্রসঙ্গত,গত ২৯শে সেপ্টেম্বর AIIMS-র ফরেনসিক টিম সুশান্ত কেসের চূড়ান্ত ভিসেরা CBI এর হাতে তুলে দে। এরপর একসংবাদ মাধ্যম দাবি করে AIIMS এর ডাক্তারেরা সুশান্তের মৃত্যুকে আত্মহত্যাই মনে করেন।

Related Articles

Back to top button