গসিপবিনোদন

ঐন্দ্রিলার মৃত্যুর জন্য দায়ী ‘খুনি চিকিৎসক’! মায়ের অভিযোগের পাল্টা জবাব দিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

দেখতে দেখতে দু’সপ্তাহ পার হয়ে গিয়েছে টলিউডের নামী অভিনেত্রী (Tollywood actress) ঐন্দ্রিলা শর্মা (Aindrila Sharma) প্রয়াত হয়েছেন। তবে তাঁর মৃত্যুর শোক এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি কাছের মানুষেরা। এসবের মাঝেই অভিনেত্রীর মা শিখা শর্মা (Shikha Sharma) একটি চাঞ্চল্যকর অভিযোগ এনেছিলেন। যা শোনার পর প্রত্যেকে প্রচণ্ড অবাক হয়ে যান।

গত শনিবার ‘জিয়ন কাঠি’ অভিনেত্রীর স্মরণে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন শিখাদেবী। সেখানেই সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি বলেন, ‘দু’একজন চিকিৎসকের ইগোর জন্যই ঐন্দ্রিলাকে চলে যেতে হল’। এরপর নাম নিয়েই একজন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেন তিনি।

Aindrila Sharma mother, Shikha Sharma

ঐন্দ্রিলা যে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন সেখানে ইউনিট ইনচার্জ একজন মহিলা চিকিৎসক। তাঁর বিরুদ্ধেই একাধিক অভিযোগ আনেন শিখাদেবী। তিনি বলেন, ‘দায়িত্ব নিয়ে মেয়েকে ডিপ কোমায় ঠেলে দিয়েছেন’ ওই চিকিৎসক। পাশাপাশি এও জানান, নিজের ইগোর জন্য তিনি নাকি অন্য চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে চলতেন না। যদিও অভিনেত্রীর মা এও জানান যে, সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক বাদে বাকি প্রত্যেক চিকিৎসকের এবং নার্সিং কর্মীদের ব্যবহার খুব ভালো ছিল।

‘জিয়ন কাঠি’ অভিনেত্রীর মায়ের এই চাঞ্চল্যকর বক্তব্যের পর স্বাভাবিকভাবেই চারিদিকে হইচই পড়ে গিয়েছে। এবার এই বিষয়ে এক নামী সংবাদমাধ্যমের কাছে মুখ খুলেছে সংশ্লিষ্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। অভিনেত্রীর মায়ের কথার প্রসঙ্গেই পাল্টা জবাব দিয়েছেন তাঁরা।

Tollywood actress Aindrila Sharma health update, actress is not moving her body

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে বলা হয়েছে, ‘ঐন্দ্রিলার পরিবারের তরফ থেকে আমাদের কোনও অভিযোগ জানানো হয়নি। এই বিষয়টি শোনার পর তাঁর পরিবারের সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি। তাঁদের সঙ্গে কথা বলার পর যা যা করণীয় তা করা হবে’। সম্পূর্ণ বিষয়টিকে ‘দুর্ভাগ্যজনক’ আখ্যা দিয়ে হাসপাতালের সংযোজন, ‘বাইরের থেকে উপদেশ নেওয়ার কথা যে বলছেন আমাদের মন হয় কোথাও একটা মিস কমিউনিকেশন হচ্ছে’।

ঐন্দ্রিলাকে নিয়ে আয়োজিত স্মরণ সভার পর শিখাদেবী আরও একটি ইউটিউব চ্যানেলে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেন। সেখানে বলেছিলেন, ওই চিকিৎসক নাকি বারবার বলতেন ঐন্দ্রিলা বাঁচবে না! শুরু থেকেই তিনি নেগেটিভ আচরণ করতেন। এবার সম্পূর্ণ বিষয়টি জানার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ‘জিয়ন কাঠি’ অভিনেত্রীর পরিবারের সঙ্গে আলোচনার চেষ্টা করছে। এবার দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত কী হয়!

Related Articles

Back to top button