বিনোদনসিরিয়াল

বাড়িতে খুব দুষ্টু আদৃত! সব্বার সামনেই হাটে হাঁড়ি ভাঙলেন উচ্ছেবাবুর নিজের মা

সিরিয়াল প্রেমী অথচ বাংলার সেরা সিরিয়াল ‘মিঠাই’ (Mithai) দেখেন না এমন দর্শকদের বোধ হয় দূরবীন দিয়ে খুঁজলেও পাওয়া মুশকিল। তাছাড়া এখন সিরিয়ালপ্রেমী দর্শকদের ঘরে ঘরে সুখে-দুখে মিষ্টিমুখে ঘোরাফেরা করে এখন শুধুমাত্র মিঠাইরানীর নাম। তাই দর্শকমহলে এই সিরিয়ালে জনপ্রিয়তা নিয়ে নতুন করে আর কিছুই  বলার নেই। প্রসঙ্গত এই সিরিয়ালের নায়ক অর্থাৎ অভিনেতা আদৃত রায় (Adrit Roy) হলেন দর্শকদের নয়নের মনি।

প্রসঙ্গত টেলিভিশনের পর্দায় এটাই আদৃতের প্রথম সিরিয়াল। আর এই প্রথম সিরিয়াল থেকেই একেবারে বাজিমাত করেছেন সকলের প্রিয় উচ্ছে বাবু। তাই এই অল্পদিনের মধ্যেই তিনি হয়ে উঠেছেন বাংলার অসংখ্য তরুণীর বং ক্রাশ।  অনুরাগীরা তো মিঠাইরানির কার্তিক ঠাকুর বলতে একেবারে অজ্ঞান। আদৃতের এমন অনেক ভক্তও  রয়েছেন যারা তাকে এক ঝলক দেখার জন্য ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করে থাকেন স্টুডিওর বাইরে।Mithai Serial Adrit Roy Soumitrisha Kundu

তবে তারকাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে অনুরাগীদের কৌতূহলের অন্ত নেই। ব্যতিক্রম নন মিঠাই সিরিয়ালের সিড অভিনেতা আদৃত রায়ও। সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমে আদৃতের মা (Adrits Mother) তাঁর সম্পর্কে  বেশ কিছু সিক্রেট শেয়ার করেছিলেন। অভিনেতার  রিল লাইফ আর রিয়েল লাইফের মধ্যে রয়েছে একটা দারুণ মিল। বাস্তবে যেহেতু আদৃতের দারুন গানের গলা। তাই সিরিয়ালেও মাঝে মধ্যেই তার গলায় গান শুনতে পানা দর্শকরা।

মিঠাই ভক্তরা সকলেই জানেন সিরিয়ালের সিড খুবই শান্ত স্বভাবের, কথা কম বলে। তবে অভিনেতার মা জানিয়েছেন সিরিয়ালের শান্ত স্বভাবের হলেও বাড়িতে নাকি তার ছেলে আদৃত ভীষণ দুষ্টু স্বভাবের। তাই নিজের দুষ্টুমির জন্য নাকি ছোটবেলায় হাতা খুন্তি সবকিছু দিয়েই মায়ের কাছে মার খেয়েছেন অভিনেতা। বাড়িতে থাকলে এখন নাকি কথায় কথায় তার সাথে ঝগড়া লেগে যায় আদৃতের। তবে বাবার সাথে নাকি অতটাও ঝগড়া বাধে না অভিনেতার।

cropped-Mithai-Serial-Adrit-Roy-Nababarsha-Photos-goes-viral.jpg

অভিনেতার মা জানিয়েছেন বাড়িতেও নাকি মাঝেমধ্যেই গান গেয়ে ওঠেন আদৃত। তখন তিনি বিরক্ত হয়ে তাঁকে চুপ করতে বললে মাকে রাগিয়ে দেওয়ার জন্য নাকি আরও বেশি করে গান গাওয়া শুরু করে দেন আদৃত। পাশাপাশি অভিনেতার মায়ের দাবি বয়স বাড়লেও নাকি তার ছেলের ম্যাচিউরিটি বাড়েনি। আদৃতের মায়ের কথায় বয়স বাড়ার সাথে সাথে নাকি তার ম্যাচিউরিটি কমছে। পাশাপাশি ছেলের প্রশংসা করে অভিনেতার মা জানান তার মধ্যেও নাকি একটু একটু করে দায়িত্ববোধ আসছে।

Related Articles

Back to top button