গসিপবিনোদন

আর্থিক অনটনে ধুঁকছেন উদিত-পুত্র! সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন ইন্ডাস্ট্রির ‘বন্ধুরা’

করোনা মহামারীর জেরে কার্যত তছনছ হয়ে গেছে গোটা বিশ্ব। এই মহামারী যেমন কেড়েছে মানুষের প্রাণ তেমনই এই ভাইরাস কেড়েছে বহু মানুষের সুখ স্বাচ্ছন্দ্য। ইতিমধ্যেই হেলে পড়েছে দেশীয় অর্থনীতি। বিভিন্ন ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন কাজ বন্ধ থাকায় ফুরিয়ে এসেছে মানুষের শেষ সঞ্চয়টুকুও। এই পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন খোদ জনপ্রিয় গায়ক উদিত নারায়ণের পুত্র আদিত্য।

সম্প্রতি তার আর্থিক দুরাবস্থার কথা জানিয়েছেন উদিত পুত্র। খুব শিগগিরই শ্বেতা আগরওয়ালের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন আদিত্য। কিন্তু বিয়ের আগে তার আর্থিক অবস্থা মোটেও সুখকর নয়। লকডাউনকালীন অবসরে নাকি নিজের সঞ্চয়ের সমস্ত অর্থই শেষ করে ফেলেছেন আদিত্য। গান – টিভি অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করে তিনি যা উপার্জন করতেন, দীর্ঘ কয়েকমাস সেসবও বন্ধ। তিনি জানান তার অ্যাকাউন্টে নাকি পড়ে রয়েছে মাত্র ১৮ হাজার টাকা। তিনি জানিয়েছিলেন এভাবে চলতে থাকলে নাকি তাকে বাইক-ও বেচতে হতে পারে।

তার এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়ে যায় জোর শোরগোল। সকলেরই চিন্তা আদিত্য নারায়ণ দেউলিয়া হয়ে গেছেন। যদিও তার এই দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার খবর সত্যি নয় বলেই জানান আদিত্য। তার বক্তব্য এই লকডাউনের জেরে তার কেবল আর্থিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে। এদিকে আদিত্য দেউলিয়া হয়েছেন শুনে তার শুভাকাঙ্ক্ষীরা বাড়িয়ে দিয়েছেন সাহায্যের হাত। তার যাতে কোনোরকম সমস্যা না হয় তাই জন্য সর্বতোভাবে আদিত্যর পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন তার ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুরা। এত ভালোবাসা পেয়ে আপ্লুত আদিত্য।

কিন্তু,এখনই তার কোনোও সাহায্য প্রয়োজন নেই বলেও জানিয়েছেন আদিত্য।নতুন অ্যাআপার্টমেন্ট বাবদ তার ৫লক্ষ টাকা করে ইএমআই কাটা যাচ্ছে, তাই বলে তিনি দেউলিয়া হয়ে গেছেন একথা মিথ্যে বলেই দাবি করেন আদিত্য।

করোনা মহামারীর জেরে কার্যত তছনছ হয়ে গেছে গোটা বিশ্ব। এই মহামারী যেমন কেড়েছে মানুষের প্রাণ তেমনই এই ভাইরাস কেড়েছে বহু মানুষের সুখ স্বাচ্ছন্দ্য। ইতিমধ্যেই হেলে পড়েছে দেশীয় অর্থনীতি। বিভিন্ন ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন কাজ বন্ধ থাকায় ফুরিয়ে এসেছে মানুষের শেষ সঞ্চয়টুকুও। এই পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন খোদ জনপ্রিয় গায়ক উদিত নারায়ণের পুত্র আদিত্য।

সম্প্রতি তার আর্থিক দুরাবস্থার কথা জানিয়েছেন উদিত পুত্র। খুব শিগগিরই শ্বেতা আগরওয়ালের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন আদিত্য। কিন্তু বিয়ের আগে তার আর্থিক অবস্থা মোটেও সুখকর নয়। লকডাউনকালীন অবসরে নাকি নিজের সঞ্চয়ের সমস্ত অর্থই শেষ করে ফেলেছেন আদিত্য। গান – টিভি অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করে তিনি যা উপার্জন করতেন, দীর্ঘ কয়েকমাস সেসবও বন্ধ। তিনি জানান তার অ্যাকাউন্টে নাকি পড়ে রয়েছে মাত্র ১৮ হাজার টাকা। তিনি জানিয়েছিলেন এভাবে চলতে থাকলে নাকি তাকে বাইক-ও বেচতে হতে পারে।

তার এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়ে যায় জোর শোরগোল। সকলেরই চিন্তা আদিত্য নারায়ণ দেউলিয়া হয়ে গেছেন। যদিও তার এই দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার খবর সত্যি নয় বলেই জানান আদিত্য। তার বক্তব্য এই লকডাউনের জেরে তার কেবল আর্থিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে। এদিকে আদিত্য দেউলিয়া হয়েছেন শুনে তার শুভাকাঙ্ক্ষীরা বাড়িয়ে দিয়েছেন সাহায্যের হাত। তার যাতে কোনোরকম সমস্যা না হয় তাই জন্য সর্বতোভাবে আদিত্যর পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন তার ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুরা। এত ভালোবাসা পেয়ে আপ্লুত আদিত্য।

কিন্তু,এখনই তার কোনোও সাহায্য প্রয়োজন নেই বলেও জানিয়েছেন আদিত্য।নতুন অ্যাআপার্টমেন্ট বাবদ তার ৫লক্ষ টাকা করে ইএমআই কাটা যাচ্ছে, তাই বলে তিনি দেউলিয়া হয়ে গেছেন একথা মিথ্যে বলেই দাবি করেন আদিত্য।

Related Articles

Back to top button