নেহা কক্করের পরেই এবার আদিত্য নারায়ণ জানালেন নিজের বিয়ের কথা।জানুন কে হচ্ছেন …


অভিনেতা আদিত্য নারায়ণের (Aditya Narayan) নাম কিছুদিন আগে জড়িয়েছিল নেহা কক্করের (Neha Kakkar) সাথে। বলিউড মহলে গুঞ্জন উঠেছিল যে তারা নাকি বিয়ে করতে চলেছেন। যদিও পরে তা মিথ্যে প্রমাণিত হয়, জানা যায় যে শুধু মাত্র শো এর টিআরপি বাড়ানোর জন্যই সমস্ত ঘটনা ঘটেছিল। এরপর কেটে গিয়েছে বেশ কিছুটা সময় তার পর নেহা কাক্কর সম্প্রতি পাঞ্জাবি গায়ক রোহানপ্রীতের (Rohanpreet) সাথে নেহা কাক্করের বিয়ে নিয়ে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া। এরই মাঝে অভিনেতা আদিত্য নারায়ণ শেষমেশ নিজের প্রেমের কথা স্বীকার করলেন।

আদিত্য নারায়ণ নিজের প্রেমের কথা স্বীকার করেছেন বলেছেন যে তিনি নাকি তার প্রেমিকার সাথে বিগত দশ বছর ধরে ডেটিং করছেন। অর্থাৎ সেই ২০১০ সাল থেকেই চলছে ডেটিং যা তিনি এতদিন পর্যন্ত প্রকাশ্যে আনেননি। বর্তমানে খাতরন কে খিলারি ৯ এর প্রতিযোগী হয়েছেন আদিত্য নারায়ণ। সেখানেই তিনি স্বীকার করেছেন যে তিনি বিগত ১০ বছর ধরে ডেট করছেন একজনকে।

আদিত্য নারায়ণের এই প্রেমিকা আর কেউ নন, তিনি হলেন শ্বেতা আগারওয়াল (Sweta Agarwal)। জানা যাচ্ছে ২০১০ সালে বলিউডে “শাপিত” (Shaapit) ছবিতে আদিত্য ও শ্বেতার প্রথম আত্মপ্রকাশ ঘটে। তার পর থেকেই একে অপরকে ডেট করছেন দুজন। শ্বেতার সম্পর্কে আদিত্য বলেন, “আমি কোনোদিনই আমাদের সম্পর্ক গোপন রাখিনি। যদিও একটা পর্যায়ে আমাদের নিয়ে প্রচুর কথা ওঠে, সুতরাং আমি সিদ্ধান্ত নিই যে এব্যাপারে আমি মুখ  খুলব। কিন্তু সেই সময় আমার কথা শোনার মত কেউ  ছিল না”।

আদিত্যের বলেন “শাপিতের সেটে দুজনের দুজনকে দেখেই পছন্দ হয়ে গেছিল, আমরা ডেটিং ও শুরু করি সাথে ধীরে ধীরে সেটা প্রেমে পরিণত হয়। প্রথমে শ্বেতা এই সম্পর্কটাকে শুধু বন্ধুত্বের সম্পর্কই রাখতে চেয়েছিল। কারণ তখন আমাদের বয়স খুবই কম ছিল, সামনে কেরিয়ার ছিল যেটা নিয়ে আমাদের তখন ফোকাস করা উচিত ছিল। এই ১০ বছরে আমরা যেকোনো সম্পর্কের মতোই অনেক ভালো ও খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে গিয়েছি। তবে এবার আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আগামী নভেম্বর বা ডিসেম্বরেই আমরা বিয়ে করতে চলেছি। ”

আদিত্য আরো বলেন, “আমার মা বাবার শ্বেতাকে খুব পছন্দ। আর তাছাড়া আমি নিজেও খুব খুশি সোয়েটার মত একজনকে সঙ্গী হিসাবে পেয়ে”। এরপর আদিত্য আরো বলেছেন “আমার মনে আছে কিভাবে কিছু বছর আগে কিভাবে লোকে ভেবেছিল আমাদের মধ্যে ব্রেকআপ হয়ে গেছে, ও শ্বেতা ভেঙে পড়েছে। এই ভাবে কাউকে ব্যক্তিগত আক্রমন করাটা উচিত না। আমি মানছি মাঝে মাঝে সম্পর্কের মধ্যে কিছু খারাপ সময় আসে, তাবলে এই না যে তার জন্য সম্পর্ক ভেঙে যাবে! আজকাল খুব সহজেই বিয়ে ভেঙে যায়, তাই আমরা দুজন দুজনকে জানার জন্য বেশ খানিকটা সময় নিয়েছে। এই দীর্ঘ ১০বছর পর আমি বুঝতে পারছি এটাই হল সঠিক সময় আমাদের একসাথে হবার। “


Like it? Share with your friends!

645
645 points