বিনোদনসিরিয়াল

বৌ নয় মা পাগল ছেলে! সমাজের চোখে আঙ্গুল দেখানো ‘নিম ফুলের মধু’ নিয়ে অকপট পর্ণার শাশুড়ি অরিজিতা

বাংলা বিনোদন জগতের জনপ্রিয় একজন অভিনেত্রী হলেন অরিজিতা মুখোপাধ্যায় (Arijita Mukhopadhyay)। বেশিরভাগ ধারাবাহিকেই দাপুটে খলনায়িকার চরিত্রেই অভিনয় করেন তিনি। তবে শুধু বাংলা সিরিয়াল নয় অভিনেত্রীর অবাধ যাতায়াত রয়েছে মঞ্চ নাটক থেকে শুরু করে সিনেমা এবং ওয়েব সিরিজের দুনিয়াতেও। দাপুটে এই মঞ্চ অভিনেত্রী বর্তমানে অভিনয় করছেন জি বাংলার নতুন সিরিয়াল ‘নিম ফুলের মধু’ (Nim Fuler Madhu)-তে।

নতুন এই সিরিয়ালে নায়িকা পর্ণার চরিত্রে অভিনয় করছেন ‘কে আপন কে পর’ সিরিয়ালের জবা অভিনেত্রী পল্লবী শর্মা। অন্যদিকে নায়ক সৃজনের চরিত্রে অভিনয় করছেন ‘যমুনা ঢাকি’ সিরিয়ালের সংগীত অভিনেতা রুবেল দাস। সিরিয়ালে সে একেবারে মায়ের বাধ্য ছেলে। যাকে বলে ‘মাম্মাজ় বয়’ (Mamma’s Boy)। সিরিয়ালে সৃজন এমনই একজন ছেলে যে সারাক্ষণ মায়ের কথাই ‘বেদবাক্য’ বলে মনে করে।

তাই মায়ের কোথায় শুনে চলে সারাক্ষণ। এমনকি মা ভুল করলেও তার চোখে সেটাই ঠিক। তবে সেদিক দিয়ে দেখতে গেলে সৃজন কিন্তু আসলে বাস্তব জীবন থেকে উঠে আসা একটি চরিত্র। কিন্তু বাস্তব জীবনে যেসব ছেলেরা বিয়ের পরেও মায়ের আঁচল ধরে চলে তাদের বৌ-এর কপালে অশেষ দুর্গতি। এই বিষয়টাই ফুটিয়ে তোলা হবে এই সিরিয়ালের মধ্যে দিয়ে।

তাই নিম ফুলের মধু সিরিয়ালে নায়ক-নায়িকা ছাড়াও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে জুড়ে রয়েছেন অরিজিতা অভিনীত সৃজনের মা কৃষ্ণার চরিত্রটি। তবে  বাস্তব জীবনে বরাবরই স্পষ্টবাদী অরিজিতা।তাই সম্প্রতি টিভি নাইন বাংলার তরফে অভিনেত্রীর কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল তিনি নিজে এই ‘মাম্মাজ় বয়’দের ঠিক কোন চোখে  দেখেন?

Actress Arijita Mukhopadhyay praise Nim Fuler Madhu

উত্তরে অভিনেত্রীর সপাট জবাব ‘আমি অবিবাহিত। কিন্তু সত্যিই যদি এরকম পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয় কখনও, তা হলে আমি কথা বলে পরিস্থিতি সামলানোর আপ্রাণ চেষ্টা করব’। সেইসাথে অরিজিতা বলেছেন তিনি জানতে চাইবেন, মায়ের ছেলের প্রতি আসক্তি এবং ছেলের মাকে অন্ধের মতো সাপোর্ট করার ইতিহাসটা। আর তারপরেই দুজনের মধ্যে সুসম্পর্ক বজায় রেখেই অবসেশনের জায়গা কমানোর চেষ্টা করবেন।

অভিনেত্রীর কথায় মা-ছেলের এই মাত্রাতিরিক্ত আসক্তির বিষয়টা অনেক পুরোনো। এক্ষেত্রে তিনি উদাহরণ দিয়েছেন রবীন্দ্রনাথের চোখের বালির। তাই  অরিজিতা বলেছেন, ‘আমার ধারণা ‘নিম ফুলের মধু’কে মানুষের বুঝতে একটু সময় লাগবে। কিন্তু একবার যদি মানুষ বুঝে যায়, এই সিরিয়াল সমাজে পরিবর্তন ঘটাতে পারবে। এই ধারাবাহিক লম্বা রেসের ঘোড়া।’

Related Articles

Back to top button