বিনোদনসিনেমা

অভিষেক থাকলে কষ্ট পেত! তৃণা সাহার পাল্টা মন্তব্যের পর কড়জোড়ে নতুন আর্জি সংযুক্তার

‘সময় বয়ে যায় নদীর স্রোতের প্রায়’। সত্যিই তাই, দেখতে একমাস হতে চলল বাংলা ইন্ডাস্ট্রির কার্তিক ঠাকুর বলে পরিচিত অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায় (Abhishek Chatterjee) আজ আর আমাদের মধ্যে নেই। চিরকাল লাইট, ক্যামেরা অ্যাকশনের দুনিয়ায় থাকতে ভালোবাসা মানুষ টা আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ায় হয়ে উঠেছেন নেটিজেনদের আলোচনার বিষয়।

আর অভিনেতার মৃত্যুর পর থেকেই স্বামী হারানোর যন্ত্রণার মধ্যেই কোনো না কোনো মন্তব্য পাল্টা মন্তব্যের জেরে একেবারে নাজেহাল অবস্থা হয় অভিষেক পত্নী সংযুক্তা । প্রসঙ্গত মৃত্যুর আগে অভিনেতা স্টার জলসার দু’দুটি জনপ্রিয় সিরিয়াল খড়কুটো এবং মোহর -এ দুটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করতেন। এরমধ্যে খড়কুটো সিরিয়ালে অভিনেত্রী তৃণা সাহা অর্থাৎ পর্দার গুনগুনের ড্যাডি চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যেত অভিষেক চ্যাটার্জীকে।

cropped-Abhishek-Chatterjee-Passes-Away.jpg সম্প্রতি এই সিরিয়ালের নায়িকা গুনগুন যার সকলের প্রিয় মিঠুদা হলেন পিতৃসম, তাঁর শেষ সিনেমার ট্রেলার লঞ্চে গিয়ে বলেছিলেন “মিঠু দা আমাকে বলতেন বড় হয়ে যাতে সাইনা তোর মতো হয়। আমি জানি না কেন এটা বলতেন। তবে আমি চাইব ডল আমার থেকে ভালো মানুষ হোক বড় হোক নিজের কেরিয়ারে।”  তৃণার সেই দাবির বিরুদ্ধে পাল্টা মত প্রকাশ করেন অভিষেক পত্নী সংযুক্তা চ্যাটার্জী (Sanjukta Chatterjee)।

নাম না করেই একটি দীর্ঘ সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে তোপ দাগেন তার স্বামীর সহ অভিনেত্রী কে। সেই লম্বা ফেসবুক পোস্টে সংযুক্তা জানিয়েছিলেন তিনি বা তাঁর প্রয়াত স্বামী কখনোই মেয়েকে কারও মতো বানাতে চাননি। তার এই মন্তব্যের জেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের একটা বড় অংশ তার বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফেটে পড়ে। এরপর নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে সংবাদমাধ্যমে তৃণা জানান, অভিষেকের মেয়ে হওয়ার কোনও ইচ্ছেই নেই তার । নিজের বাবা আর শ্বশুরমশাই, দুই ড্যাডিকে নিয়েই খুশি তিনি। আর তৃণার বক্তব্যের পর সম্প্রতি ফের একবার সোশ্যাল মিডিয়ায় দীর্ঘ পোস্ট করেছেন সংযুক্তা।

গতকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবারও অভিষেকের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকেই একটা লম্বা পোস্ট করেছেন সংযুক্তা। আর তাতে তিনি লিখেছেন ‘আমি আর সাইনা (ডল) যদিও অভিষেকের শুভেচ্ছা নিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার চেষ্টা করছি, তার মধ্যে আপনাদের কাছে আমার কড়জোরে নিবেদন, দয়া করে সাইনাকে সমস্ত বিতর্ক থেকে দূরে রাখুন। অভিষেকের কাছে সাইনাই সব ছিল। ওর বউ হিসেবে আমি জানি অভিষেক থাকলে কষ্ট পেত যে কীভাবে বিতর্কে আমাদের ডলকেও টেনে আনা হচ্ছে। বিশ্বাস করুন, সাইনাও চেষ্টা করছে নিজেকে এই শোক থেকে বের করে আনার। আমার অনুরোধ আপনারাও আমাদের সাহায্য করুন অভিষেকের উত্তরাধিকার বহন করে নিয়ে চলার। আপনারা দয়া করে বাবা-মেয়ের এই বন্ডিংকে সম্মান করুন ও এসব বিতর্ক থেকে বেরিয়ে আসুন।’

Related Articles

Back to top button