জীবনে অনেক স্ট্রাগল করেছি, মন্তব্য করার সাথে সাথেই নেটিজেনদের তুমুল ট্রোলের শিকার অভিষেক বচ্চন


এমনিতেই সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকে নেপোটিজম এখন অতিচর্চিত বিষয়। অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপূতের মৃত্যুর পর থেকে গোটা দেশে নেপোটিজমের বিরুদ্ধে অঘোষিত আন্দোলন চলছে। এই আন্দোলনে সামিল গোটা দেশবাসী। এই নেপোটিজমের নিশানা থেকে বাঁচতে পারেননি বড়সড় ষ্টারকিডরাও মহেশ কন্যা আলিয়া ভাট থেকে রণবীর কাপুর,সলমন খানের মত বড়মানের অভিনেতা অভিনেত্রীরা।

এহেন পরিস্থিতিতে নিজেকে নেপোটিজমের শিকার দাবি করে বসলেন অভিষেক বচ্চন, যার জেরে ট্রোল  হতে হল নিজেকেই। বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা অমিতাভ বচ্চনের ছেলে অভিষেক বচ্চন। বাবা অমিতাভ বচ্চনের মত নামখ্যাতি অর্জনে সক্ষম না হলেও তাকে নিয়ে  ট্রোলের শেষ নেই নেটিজেনদের মধ্যে। কারণ নেটিজেনদের ধারণা বাবার  দৌলতেই তিনি তার ক্যারিয়ার ও নাম প্রতিপত্তি পেয়েছেন,তবুও নিজেকে বাবার মত যোগ্য প্রমান করতে ব্যর্থ তিনি।

এতো গেল বাবা-ছেলের কথা, এর পর অভিষেকের বিয়ে হয় ঐশ্বর্য  রাই এর সাথে। যা নিয়ে বহু কটূক্তির মুখে পড়তে হয় অভিষেক বচ্চনকে। এই অবস্থায় নিজের কেরিয়ারে বহু স্ট্রাগল করেছেন বলে টুইটারে ট্রোল হতে হল অভিষেক বচ্চনকে। জয়প্রকাশ নামক এক ব্যক্তি টুইটারে অভিষেক বচ্চনকে নেপোটিজম প্রোডাক্ট বলে সমধান করেছেন। সাথে বলেছেন অভিষেক যেভাবে জীবনে স্ট্রাগল করছেন ভগবান সেই রকম স্ট্রাগল যেন সবাইকে দেন। সাথে অভিষের ইউটিউব চ্যানেলের কোথাও বলেন।

অভিষেক বচ্চন কিন্তু এই ট্রোলের উত্তর দিয়েছেন ঠান্ডা মাথায়, বলেছেন তার ইউটিউব চ্যানেলটি সম্পূর্ণ তার নিজের ও তার স্ত্রী ঐশর্যের পরিশ্রমের ফল। সেখানে তার বাবা কারোর কাছে তার নাম সুপারিশ করেননি। এর আগেও অভিষেক ট্রোলড হলে নিজেকে এই ভাবেই সামলে নিয়েছেন।


Like it? Share with your friends!

689
689 points