গরমে ঠান্ডার অনুভূতি আর ছোটবেলার নস্টালজিয়া আম পোড়ার শরবত, রইল রেসিপি


গরমকাল মানেই আমের (Mango) সিজেন। ইতিমধ্যেই আমগাছের মুকুল থেকে আম হয়ে গিয়েছে। এবার শুধু আমি পাকার অপেক্ষা তারপরেই মন ভরে আম খাওয়া যাবে। তবে কাঁচা আমি দিয়েও কিন্তু নানান চটপটে খাবার তৈরী হয়। বিশেষত কাঁচা আম দিয়ে তৈরী চাটনি বা আমি দিয়ে টকের ডাল গরমের একেবারে দুর্দান্ত খাবার। তবে ছোটবেলায় অনেকেই আম দিয়ে তৈরী এক বিশেষ পানীয় খেয়েছেন। যা খেলে জিভে স্বাদ লেগে থাকে বেশ কিছুক্ষণ। ঠিকই ধরেছেন আমপোড়ার শরবতের কোথায় বলছি।

একসময় বাড়িতে বাড়িতে তৃষ্ণা মেটানোর পাশাপাশি আজকের সফ্ট ড্রিঙ্ক হিসাবে খাওয়া হত আমপোড়ার শরবত। যা খেয়ে পেট তো ভরতই সাথে মনটাও ভোরে যেত। এখন অবশ্য সে সবের বালাই নেই বললেই চলে। তবে সেই স্বাদ যদি পাওয়া যায় বাড়িতেই তাহলে কি আর ছাড়া যায়! আসুন দেখে নেওয়া যাক বাড়িতেই আম পোড়ার শরবত বানানোর সহজ রেসিপি।

আম পোড়ার শরবত বানানোর উপকরণঃ 

  • তিন চারটে মত কাঁচা আম
  • বিটনুন, চিনি, আর গোটা জিরে
  • জল আর বরফ

আম পোড়ার শরবত বানানোর পদ্ধতিঃ 

  • সবার আগে একটি পাত্রে গোটা জিরে ভেজে নিতে হবে।
  • এরপর সেই ভাজা জিরে মিক্সি মেশিনে ভালো করে গুঁড়ো করে নিতে হবে।
  • এবার এরপর আম পোড়াতে হবে। চাইলে গ্যাসের আগুনে বা অন্যত্র কাঠের আগুনে যেখানে খুশি আমগুলিকে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে ভালোভাবে পোড়াতে হবে। একেবারে বেগুন ভাজার মত করে। যাতে আম একেবারে নরম তুলতুলে হয়ে যায়।
  • আম পোড়ানো হয়ে গেলে সেগুলিকে ঠান্ডা করতে হবে।
  • ঠান্ডা হবার পরে পোড়া খোলস ছাড়িয়ে আমের শাঁস বের করে নিতে হবে।
  • এরপর ফের মিক্সিতে এই আমের শাঁস, জিরে গুঁড়ো, বিটনুন আর জল দিয়ে পেস্ট মত তৈরী করে নিতে হবে।
  • ব্যাস এবার আপনার আমিপোড়া শরবত একেবারে রেডি। এবার শুধু কিছু বরফ কুচি দিয়ে ঠান্ডা ঠান্ডা আমপোড়া শরবত খাবার পালা।