খবর

বড় খবর : করোনার পর দানা বাঁধছে নয়া আশঙ্কা! কলকাতায় প্রথম ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে মৃত হরিদেবপুরের শম্পা

দেশজুড়ে করোনা পরিস্থিতিতে নাস্তানাবুদ মানুষ। ফি দিনেই লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা। কোনো ভাবেই মোকাবিলা করা সম্ভব হচ্ছেনা সংক্রমন। ইতিমধ্যেই বেহাল গোটা দেশের চিকিৎসা পরিষেবা এর মাঝেই নতুন আশঙ্কা দানা বাঁধছে।

করোনার পর ব্ল্যাক ফাঙ্গাস জাঁকিয়ে বসছে আক্রান্তদের শরীরে। গোটা দেশের পাশাপাশি, খোদ বাংলাতেও মিলেছে এর নজির। করোনা রোগীদের এই ফাঙ্গাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি হলেও, যেকোনো সুস্থ মানুষেরও এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের তরফে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসকে মহামারী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। রাজ্য গুলিতে এই রোগ প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশিকাও পাঠিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

এবার এই ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত হয়ে খোদ কলকাতায় মৃত্যু হয়েছে এক মহিলার। ৩২ বছরের এই মহিলার নাম শম্পা, তিনি হরিদেবপুরের বাসীন্দা। শম্পা করোনার পাশাপাশি ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বা মিউকরমাইকোসিসেও আক্রান্ত হন। ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের চিকিৎসাও করা হয়েছিল তাঁর। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে মৃত্যু হয় তাঁর। করোনা এবং ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের জেরে এই প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটল কলকাতায়।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, ওই মহিলা করোনা আক্রান্ত ছিলেন, পাশাপাশি তার ডায়াবেটিস ও ছিল। এর পর তার শরীরে দানা বাঁধে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস। চিকিৎসকরা চিকিৎসা শুরু করলেও শম্পা চিকিৎসায় সাড়া দেননি। কলকাতাতে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের হানায় প্রথম মৃত্যুর পরেই ক্রমে দানা বাঁধছে আশঙ্কা।

Related Articles

Back to top button