খবরবিনোদন

ভিডিও গেম খেলার নেশায় ঘোর বিপদ যুবকের! টয়লেটে বসে পশ্চাতদেশে খেলেন সাপের কামর

বাড়ির গুরুজনরা ছোটদের বারংবার বলেন চলাফেরা করার সময় সাবধানতা অবলম্বন করতে। কিন্তু সেকথা আর মাথায় রেখে চলেই বা কজন? তার পই পই করে পাখি পড়ার মতো করে বলে দেন, কোথাও অচেনা স্থানে অথবা কোথাও বসবার আগে ভালো করে দেখে নিতে। কিন্তু বেশিরভাগ সময়ই কেউ এটা লক্ষ করেনা৷ আর এবার এর জেরেই ২৮ বছর বয়সী এক যুবকের সাথে ঘটেছে অদ্ভুত ঘটনা৷ । যার ফলে তাকে রীতিমতো মৃত্যুরও সম্মুখীন হতে হয়েছে।

আজকালকার জেনারেশনদের বেশির ভাগ জনই বাথরুম বা টয়লেটে গিয়ে ফোন ঘাঁটেন। মালয়েশিয়ান (Malaysian) যুবক সাবরি তাজালির এমনই বদভ্যাস ছিল৷ আর এর জেরে তাকে রীতিমতো মৃত্যুর দোরগোড়া থেকে ফিরে আসতে হয়েছে। দুর্ঘটনার দিন ওই যুবক তার মোবাইল ফোন সমেত টয়লেটে প্রবেশ করেন। শুধু তাই নয় টয়লেটে গিয়ে তিনি বুঁদ হয়েছিলেন মোবাইল গেমে। এমন সময় ওই যুবকের নিতম্বে সাপ কামড়ে ধরে।

একেবারে দুটি বিষ দাঁত বসে যায় তার পশ্চাতদেশে। কিন্তু সেই যুবক তার কাজে এতটাই ব্যস্ত হয়ে উঠেছিল যে সে সেই মুহূর্তে টের পাননি যে তার সঙ্গে একটা এত বড় কান্ড ঘটে গিয়েছে। ঘটনার প্রায় দু’সপ্তাহ পর যুবক টের পায় তার ক্ষত স্থান কিছুতেই সারছেনা৷ এরপর পরীক্ষা নিরীক্ষার পর বোঝা যায় ক্ষত স্থানে সাপের একটি দাঁত তখনও বর্তমান৷ ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়ায় যুবকের স্থানীয় এলাকাবাসীদের মধ্যে। এমনকি নেট নাগরিকরাও এমন অদ্ভুত পরিণতির কথা শুনে ভয়ে কাঁটা।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে যুবকের তরফে জানা গিয়েছে, ‘এই ঘটনাটি ঘটে গত মার্চ মাসে। ঘটনার দিন তিনি তার মোবাইল ফোনে গেম খেলতে খেলতে শৌচ কর্ম সারছিলেন। প্রায় পনেরো মিনিটের বেশি সময় তিনি সেখানে কাটিয়েছেন কিন্তু প্রথমে কিছু বুঝতে পারেননি। খানিক বাদে এক সরীসৃপ তার নিতম্বে কামড় বসিয়ে আটকে থাকে। সে ছাড়ানোর চেষ্টা করলেও না পেরে, শেষ মেষ দরজা ভেঙে সাহায্যের জন্য বেরিয়ে আসেন। সেই মুহূর্তে কিছু অনুভূতি না হলেও পরে বুঝতে পারেন তার নিতম্বে এখনও সেই সরীসৃপের দাত আটকে রয়েছে। “

Related Articles

Back to top button