বিনোদনসিরিয়াল

নেই সাংসারিক কূটকচালি বা পরকীয়া! TRP-র অভাবে কোণঠাসা বাংলার ৪ রুচিশীল সিরিয়াল

সিরিয়াল মানে বরাবরই দর্শকদের অত্যন্ত পছন্দের একটি বিষয়। রোজকার জীবনে সিরিয়াল (Serial) দেখা এমন একটা অভ্যাসে পরিণত হয়েছে যে ইদানিং সিরিয়াল ছাড়া এক মুহূর্ত চলতে পারেন না সিরিয়ালের পোকা দর্শকরা। আসলে রোজকার কর্মব্যস্ত জীবনে একমুঠো অক্সিজেন যোগাতে বিনোদনমূলক সিরিয়াল গুলি। তাই সমস্ত কাজ সের মনের খানিক ক্লান্তি দূর করতে, পছন্দ সিরিয়াল দেখতে ভালোবাসেন কমবেশি সকলেই।

তাই স্বাভাবিকভাবেইনা দিনভর বাড়িঘর,থেকে শুরু করে অফিস চারদিকের কাজের চাপ সামলে টিভি খুলে  সিরিয়ালে ভালো কিছু দেখার অপেক্ষাতাই থাকেন দর্শকরা। কিন্তু পরিবর্তে এক ঘেয়ে সাংসারিক কূটকচালি কিংবা পরকীয়ার মতো নেতিবাচক কনটেন্ট (Negative Content) দেখে ভীষণ বিরক্ত হয়ে যান দর্শকরা। তাই সোশ্যাল মিডিয়া খুললে মাঝেমধ্যেই দেখা যায় সাংসারিক কূটকচালি থেকে শুরু করে পরকীয়া ইত্যাদি বিষয়গুলো অবিলম্বে বন্ধ করার দাবিতে সরব হতে থাকেন নেটিজেনদের একাংশ।

কিন্তু অদ্ভুতভাবে এই ধরনের নেতিবাচক বিষয় গুলিই আসলে দেখতে ভালোবাসেন দর্শকরা। অন্তত সাপ্তাহিক টিআরপি স্কোর সেটাই বলে।  তাই যেসব সিরিয়ালে পরকীয়া কিংবা সাংসারিক কুটকাচালি নেই সপ্তাহের শেষে সেই সিরিয়ালগুলির টিআরপি (TRP) ঠেকে তলানীতে। এমন সিরিয়ালের উদাহরণ আছে একাধিক। ইদানিং দর্শকদের চাহিদা কে গুরুত্ব দিয়ে বিনোদনমূলক চ্যানেলগুলিতে আনা হয়েছে একেবারে ভিন্ন স্বাদের অভিনব বিষয়বস্তুর একাধিক সিরিয়াল।

যার মধ্যে অন্যতম হলো জি বাংলার ‘লালকুঠি’ (Lalkuthi) এবং ‘খেলনা বাড়ি’ (Khelnabari) অন্যদিকে স্টার জলসার নতুন সিরিয়াল ‘গোধূলী আলাপ’ (Godhuli Alap) এবং ‘বৌমা একঘর’ (Bouma Ekghor)। কিন্তু দুঃখের বিষয় এই ধরনের ছকভাঙা সিরিয়াল গুলিতে এখনও পর্যন্ত কোন ধরনের নেতিবাচক বিষয়বস্তু না দেখানোই টি আর পি  উঠতেই চাইছে না। দর্শকদের চাহিদা অনুযায়ী টিআরপিতে ভালো স্কোর করা উচিত ছিল স্টার জলসার ‘গোধূলী আলাপ’ সিরিয়ালের। এই সিরিয়ালের অন্যতম ইউএসপি হল উকিলবাবু অরিন্দম এবং নোলকের অসমবয়সী দাম্পত্য জীবনেরকাহিনী। এছাড়া এই সিরিয়ালের দর্শকদের উপরি পাওনা হল কৌশিক সেন এবং সোহাগ সোনার মত দাপুটে অভিনেতাদের উপস্থিতি।

অন্যদিকে রয়েছে ষ্টার জলসার কমেডি ড্রামা নির্ভর সিরিয়াল ‘বৌমা একঘর’। এই  সিরিয়ালে এমন দুজন ছেলেমেয়ের কথা তুলে ধরা হয়েছে যারা জীবনে কিছু করেদ দেখাতে পারেনি তাই বিয়ের পর তারা নতুন কিছু করে দেখানোর আশায় দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। অন্যদিকে জি বাংলার রহস্য রোমাঞ্চে ভরা ‘লালকুঠি’তে রাহুল- রুকমার  দুর্দান্ত কেমিস্ট্রিও দাগ কাটতে পারছে না টি আর পি তালিকায়। এছাড়া রয়েছে জি বাংলার আরো একটি সিরিয়াল ‘খেলনা বাড়ি’।এই সিরিয়ালের ইন্দ্র মিতুলের গল্পও পাত্তা পাচ্ছে না টিআরপিতে। তাই দর্শকরা মুখে যতই বলুন না কেন, আসলে তারা সিরিয়ালের পরকীয়া কিংবা সাংসারিক কুটকাচালি দেখতেই যে বেশি  ভালোবাসেনা একথা কিন্তু একপ্রকার প্রমাণিত।

Related Articles

Back to top button