ভাইরালভিডিও

৩ কেজির বাহুবলী সিঙ্গাড়া! চ্যালেঞ্জ নিয়ে খেতে পারলেই মোটা টাকার পুরস্কার, রইল ভাইরাল ভিডিও

আজকাল ছোট থেকে বড় সকলেই সোশ্যাল মিডিয়াতে (Social Media) মত্ত। সুযোগ পেলেই স্মার্টফোনে ফেসবুক ঠিক ইউটিউবে উঁকি মারেন সকলে। আর এই সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতেই আমরা কতশত জিনিস দেখতে পাই যেটা হয়তো কোনো দিনই দেখা হয়ে উঠতো না। শুধু যে ভালো বা দুঃখের দৃশ্য তা নয়, এমন কিছু জিনিস দেখা যায় সোশ্যাল মিডিয়াতে যেটা চমকে দেয় সকলকেই।

সম্প্রতি এমনই একটি চমকে দেওয়ার মত ঘটনা সামনে এসেছে সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে। দক্ষিণী ছবিই বাহুবলী প্রায় সকলেরই দেখা বা অন্তত শুনেছেন নিশ্চই। এবার সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে ভাইরাল হয়ে পড়েছে বাহুবলি সিঙ্গারা (Bahubali Singara)।ভাবছেন সিঙ্গাড়া আবার বাহুবলী হবে কি করে? তাহলে পুরো বিষয়টা পড়ুন আপনিও থ হয়ে যাবেন।

আসলে খাওয়া দাওয়া কার না পছন্দ! সকাল থেকে রাতের খাওয়া বাদেও সন্ধ্যের দিকে হালকা খিদে মেটাতে সিঙ্গাড়া অনেকেই খেয়ে থাকেন। মিষ্টির দোকান থেকে রাস্তার ধারের খাবারের দোকানে অনায়াসেই সিঙ্গাড়া কিনতে পাওয়া যায়। কিন্তু দোকানের বিক্রি বাড়াতে এই দোকানি এক দারুণ বুদ্ধি বের করে ফেলেছেন। সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে ভাইরাল হলেই সেটা চলবে গ্যারেন্টি।

তাই এবার আতি পাতি নয় একেবারে ৩ কেজির বিশাল সিঙ্গাড়া (3 KG Samosa) বানিয়ে ফেলেছেন এক দোকানদার। আর যেমন ভাবনা ঠিক তেমনি কাজ, ৩ কেজির সিঙ্গাড়া দেখতে আর খেতে ভিড় জমছে দোকানের সামনে। এই বিশাল সাইজের সিঙ্গাড়াকে নেতিজ্ঞরাই বাহুবলী সিঙ্গারা নাম দিয়েছেন। সম্প্রতি এই বাহুবলী সিঙ্গাড়ার ভিডিও ব্যাপক ভাইরাল হয়ে পড়েছে।

যেমনটা জানা যাচ্ছে গাজিয়াবাদের এক স্ট্রিট ফুডের দোকানে পাওয়া যাচ্ছে এই সিঙ্গাড়া। যেটা খেতে রীতিমত দূর দূরান্ত থেকে ভিড় জমাচ্ছেন মানুষে। বিশাল এই সিঙ্গাড়ার দাম রাখা হয়েছে মাত্র ৫০০ টাকা। তবে সিঙ্গাড়া নিতে গিয়ে টাকা দেওয়ার বদলে মোটা টাকা নিয়ে বাড়ি ফিরতে পারেন। কিভাবে? দোকানের মালিকের মতে, এই ৩ কেজির সিঙ্গাড়া যে ৫ মিনিটের মধ্যে শেষ করতে পারবে তাকে ১১ হাজার টাকা পুরস্কার দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দোকানদার।

ভাবছেন গুজব? না মশাই! একেবারেই না, ইতিমধ্যেই এক ব্যক্তি এই বিশাল সিঙ্গাড়া ৪ মিনিট ৫১ সেকেন্ডে খেয়ে ১১ হাজার টাকা জিতেছেন। আর ৫০০ টাকা দাম বাদে মোট ১০৫০০ টাকা জিতে গিয়েছেন। তাহলে একবার ট্রাই করে দেখবেন নাকি এই বাহুবলী সিঙ্গাড়া। তাহলে দিল্লি ৬ এর মশুর বেদমি পুরি সবজি চলে ভাটুরে শাহীবাবাদ, গাজিয়াবাদে চলে যান আর চ্যালেঞ্জ নিয়ে নিন।

Related Articles

Back to top button