খবরবিনোদনভাইরালভিডিও

চিপস খেতে গিয়ে লাখপতি! গুজব নয় একেবারে সত্যি, ১৩ বছর বয়সেই চমকে দিল কিশোরী

খাদ্যরসিক মানুষ মানেই খেতে ভালোবাসেন। তাই বরাবরই নিত্যনতুন স্বাদের খাবারের সন্ধানে থাকেন তাঁরা। তাই খিদের সময় মুখের সামনে খাবার থাকলে সাতপাঁচ না ভেবে টপাটপ মুখে পুরে দিতেই অভ্যস্ত সকলে। কিন্তু এখন তো সোশ্যাল মিডিয়ার মিডিয়ার যুগ। তাই খাওয়া পরে আগে ছবি এই যন্ত্রের বিশ্বাসী বেশীরভাগ নেটিজেন। আর এভাবেই যদি কখনও বিশেষ আকৃতির তথা বিরল আকৃতির কোনো খাবার খুঁজে পাওয়া যায় তাহলে কথাই নেই।

শিল্প মানেই দৃষ্টি আকর্ষণকারী। আর খাবারের ক্ষেত্রে তা বিশেষভাবে প্রযোজ্য। তাই শুধু একটু শৈল্পিক দৃষ্টি দিয়ে দেখার অপেক্ষা। ব্যাস তাতেই কেল্লা ফতে! যদি একবার বিরল আকৃতির কোনো খাবার কারো চোখে পড়ে যায় তাহলেই রাতারাতি তিনি হয়ে যেতে পারেন লাখপতি। সম্প্রতি চিপসের প্যাকেট থেকে এমনই একটি বিরল ‘পাফড-আপ’ চিপ খুঁজে পেয়ে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার পুরস্কার পেয়েছেন এক কিশোরী।

Doritos

জানা গেছে অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দা ১৩ বছর বয়সী রাইলি স্টুয়ার্ট (Rylee Stuart) নামের এক কিশোরী সম্প্রতি ডরিটোসের ‘পাফড-আপ’ চিপের একটি প্যাকেট থেকে একটি বিরল ‘পাফড-আপ’ চিপ খুঁজে পেয়েছেন। সাধারণত এই চিপসগুলি খুব কুরমুড়ে পাতলা পাপড়ের মতো হয়। সাধারণত বাজারজাত রেগুলার প্যাকেটে এই ধরনের বিরল আকৃতির চিপ পাওয়া যায় না।

তাই ওই বিরল আকৃতির চিপ খুঁজে পাওয়ার পর রাইলি প্রথমে ভেবেছিল সে ওই চিপটি খেয়ে নেবে। কিন্তু পরে ডরিটোসের নাম নিয়ে একটি ভিডিও বানিয়ে TikTok-এ শেয়ার করে। এই ভিডিওটি এত পরিমাণে রিচ পায় যে একসময় তা ডরিটোস কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। পরবর্তীতে রাইলির বানানো ভিডিওটিই সংস্থার Twitter ও Facebook পেজে শেয়ার করা হয়েছে।

খাদ্যরসিক রাইলির এই আবিষ্কারে খূশি হয়ে PepsiCo-র মালিকানাধীন চিপস প্রস্তুতকারী সংস্থা ডরিটোস (Doritos) তাঁকে ২০,০০০ ডলার অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় ১৪ লক্ষ ৮৫ হাজার টাকা পুরস্কার হিসেবে দিয়েছে। এপ্রসঙ্গে ডরিটোসের চিফ মার্কেটিং অফিসার বন্দিতা পান্ডে (Vandita Pandey) জানিয়েছেন ডরিটোসের প্রতি রাইলির ভালোবাসার কথা বিচার করেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Related Articles

Back to top button