গর্ভাবস্থায় ত্বকের স্ট্রেচমার্ক দূর করতে ব্যবহার করুন এই ঘরোয়া টোটকা


প্রত্যেক নারীর জীবনে কিছু কিছু বিশেষ মুহূর্ত আসে। আর তাঁর মধ্যে সবচেয়ে বিশেষ মুহূর্ত হল তাঁর গর্ভাবস্থার সময়। প্রত্যেক নারীই জীবনে একটিবারের জন্য হলেও এই মুহূর্তকে উপলব্ধি করতে চায়। ‘মা’ হওয়া প্রত্যেক নারীর কাছেই গর্বের বিষয়। আর ‘মা’ হতে গেলে সইতে হয় অনেক কষ্ট।

একটি নারীর সৌন্দর্যকে কিছুটা হলেও মলীন করে তাঁর মাতৃত্ব। ওজন বেড়ে যাওয়া থেকে শুরু করে গর্ভাবস্থায় নারীদের কোমরে, পেটে একধরনের সাদা সাদা দাগ দেখতে পাওয়া যায়। যাকে স্ট্রেচমার্ক বলে। ডাক্তারি মতে গর্ভাবস্থায় নারীদের ওজন বেড়ে যাওয়ার ফলে এই দাগের সৃষ্টি হয়। তবে, নানান ক্রিম , অয়েল মাখার পর সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এই দাগ কিছুটা হলেও মিলিয়ে গেলে পুরোপুরি কোনোদিনই যায় না।

তবে, আজ আপনাদের এমন কিছু ঘরোয়া টোটকার ব্যাপারে বলবো যেগুলি ব্যাবহার করলে আপনি এক নিমেষেই আপনার শরীর থেকে এই স্ট্রেচমার্ক দূর করতে পারবেন। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক সেই টোটকা গুলি কি কি

১.নারকেল তেল (Coconut Oil)

Hair Problem Hair Growth Coconut Oil Lemon

আমাদের প্রত্যেকের বাড়িতেই কম বেশি নারকেল তেল থাকে। আর এই স্ট্রেচমার্ক দূর করতে নারকেল তেলের ভূমিকা অপরিসীম। ভারজিন কোকোনাট অয়েল প্রতিদিন স্ট্রেচমার্ক এর উপর লাগলে উপকার পাওয়া যাবে। এমনকি নারকেল তেল যে, স্কিনের সব ধরণের সমস্যায় খুবই কার্যকারী তা সকলেই জানেন।

২. চিনি (Sugar)

চিনি Sugar

আমাদের প্রত্যেক রান্নার কাজে চিনি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। চিনি কারোর বাড়ি থাকবে না এমনটা হওয়ার নয়। আর তাই চিনি দিয়েই বানিয়ে ফেলুন স্ক্রাব। এক কাপ চিনির মধ্যে এক কাপের চার ভাগের একভাগ নারকেল তেল মিশিয়ে নিন। এরপর ওতে একটু পাতিলেবুর রস মিশিয়ে নিন। এরপর এটিকে দাগের জায়গায় হালকা হাতে ঘষুন। সপ্তাহে কয়েকদিন ব্যাবহার করলেই স্ট্রেচমার্ক অনেকটাই হালকা হবে।

৩. অ্যালোভেরা (Aloe Vera)

Dandruff Problem Home Remedy খুশকি সমস্যা প্রতিকার Aloevera

ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারী একটি উপাদান হল অ্যালোভেরা। প্রতিদিন দাগের জায়গায় অ্যালোভেরা লাগলে দাগ হালকা হবে। তবে, মনে রাখবেন যে, বাজারের অ্যালোভেরা জেল একদমই লাগাবেন না। বাড়িতে অ্যালোভেরা গাছের পাতা থেকে যে জেল পাওয়া যায় সেটাই লাগাতে হবে।

৪. ভিটামিন এ (Vitamin A)

vitamine-a

মহিলাদের এই স্ট্রেচমার্ক দূর করতে ভিটামিন এ যুক্ত খাবার খান প্রতিদিন। এছাড়া ভিটামিন এ র নির্যাস দাগের উপর লাগান। এরফলে স্ট্রেচমার্ক অনেকটাই হালকা হবে। এছাড়া ভিটামিন এ যুক্ত খাবার যেমন দুধ, ডিম, গাজর, মাছের তেল এগুলি খেলেও স্ট্রেচমার্ক দূর হয়।

৫. হ্যালুরনিক অ্যাসিড (Hyaluronic Acid) 

বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ত্বকে কোলাজেন কমতে থাকে। যার ফলে ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে যায়। আর তাই হাইলারনিক অ্যাসিড যুক্ত ক্যাপসুল খেলে ত্বকে কোলাজেন ঠিক থাকে। অনেকসময় দেখা যায় যে, ত্বকে কোলাজেন এর মাত্রা সঠিক থাকলে স্ট্রেচমার্ক খুব একটা দেখা যায় না।

তাহলে, বুঝতেই পারছেন নিশ্চই ত্বকের স্ট্রেচমার্ক দূর করতে কি কি করা জরুরি। তাহলে আর দেরি না করে এই ঘরোয়া টোটকা গুলি ব্যাবহার করে নিমেষেই দূর করুন ত্বকের স্ট্রেচমার্ক।


Like it? Share with your friends!

621
621 points