সাপের নাম শুনলেই আঁতকে ওঠেন! এই শহরে শুরু হয়েছে স্নেক ম্যাসাজ পার্লার


সাপ (Snake) নামটা শুনলেই অনেকে ভয়ে আটকে ওঠেন। আসলে একসময় সাপের কামড়ে প্রচুর লোকের মৃত্যু হত একসময়। বর্তমানে যদিও সেই সংখ্যা কমে গিয়েছে অনেক। তবে মানুষের মনে সাপের প্রতি ভয় এখনও  থেকেই গিয়েছে। তাই তো টিভিতে ডিসকভারি চ্যানেলে সাপ দেখলেই চ্যানেল ঘুরিয়ে দেন অনেকেই। আর চোখের সামনে সাপ দেখলে তো আত্মারাম খাঁচা হবার জোগাড় হয়।

কিন্তু যদি বলি এই  সাপেরাই ম্যাসাজ (Massage) করে দিতে পারে! শুনে চমকে গেলেন নিশ্চই? তবে যেটা বললাম সেটা কিন্তু একেবারেই সত্যি। হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন সাপ দিয়ে যদি ম্যাসাজ করতে পারেন আপনি। অবশ্য যদি চান তাহলেই, নাহলে নয়। সাধারণত শরীরের ব্যাথা যন্ত্রনা থেকে শুরু করে গা হাত পা ম্যাজম্যাজে ভাব কাটানোর জন্যই এই ম্যাসাজ করা হয়। তেল মাখিয়ে হাত দিয়েই করা হয় ম্যাসাজ কিন্তু মিশরে এবার ম্যাসাজ হবে সাপ দিয়েও।

মিশরের রাজধানী কায়রোতে একেবারে জ্যান্ত সাপেরা আপনার বডি ম্যাসাজ করে দেবে। অভিনব এই ম্যাসাজের ক্ষেত্রে গোটা গায়ি তেল মাখিয়ে দেওয়া হয়। এরপর একে একে বেশ কিছু সাপ ছেড়ে দেওয়া হয়  আপনার শরীরের ওপরে। তারপর সাপের আপনার শরীরের ওপর দিয়ে এঁকে বেঁকে ঘুরে বেড়াবে। এটাই হল সাপের ম্যাসাজ।

কায়রোতে ডিয়া জেইন নামের এক ব্যক্তি এই স্নেক ম্যাসাজ পার্লার চালাচ্ছেন। আর শুনলে হয়তো অবাক হবেন সাপ দিয়ে ম্যাসাজ করতে বেশ ভিড় জমছে তার ম্যাসাজ পার্লারে। ম্যাসাজের সময় অবশ্য একজন অভিজ্ঞ উপস্থিত থাকছেন যাতে সাপেদের কার্যকারিতা দেখা যেতে পারে আর কোনো বিপত্তি না ঘটে। এই ম্যাসাজের ছবি ও ভিডিও শেয়ার হবার পরেই তা ভাইরাল হয়ে পড়েছিল সোশ্যাল মেডিয়াগুলিতে।

এই ম্যাসাজ সম্পর্কে বহু মানুষ প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন। অনেকের মতে এমন ভয়ঙ্কর ম্যাসাজের কোনো প্রয়োজন  নেই। অনেকেই আবার সাপেদের এই ভাবে ম্যাসাজের কাজে ব্যবহার করার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। এমনিতেই পৃথিবী থেকে বহু সাপের প্রজাতি অবলুপ্ত হয়ে গিয়েছে। সেখানে সাপেদের দিয়ে ম্যাসাজ কোনোমতেই মেনে নেওয়া যায় না।