গসিপবিনোদন

খড়কুটো থেকে ছুটি নিয়েছিলেন পরিবার নিয়ে বেড়াতে যাবেন বলে! কিন্তু এ কেমন ছুটি, আক্ষেপ লীনার

চমকে ওঠা, শিউরে ওঠা যেন অভ্যেস হয়ে দাঁড়িয়েছে মানুষের। সকালে উঠে খারাপ খবর শুনে আর আজকাল আশ্চর্য হয়না মানুষ। এই যেমন আজ সকালেই, চোখ খুলেই খবর পেল বাঙালি প্রয়াত হয়েছেন অভিনেতা অভিষেক চ্যাটার্জি (Abhishek chatterjee)। বয়স মাত্র ৫৭ বছর, শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করার আগে পর্যন্ত পর্দায় দাপিয়ে অভিনয় করে গিয়েছেন তিনি। অথচ সব শেষ হয়ে গেল আচমকা।

বিগত ১০ বছর ধরে অবিষেক চ্যাটার্জি যুক্ত রয়েছেন ম্যাজিক মোমেন্টসের প্রযোজনা সংস্থার সাথে। সেই ব্যানারেই  ‘খড়কুটো’ সিরিয়ালে গুনগুন এর ড্যাডির চরিত্রে অভিনয় করছিলেন অভিনেতা। খড়কুটোর চিত্রনাট্যকার লীনা গঙ্গোপাধ্যায় এবার মুখ খুললেন অভিষেকের প্রয়াণে।

আক্ষেপ করে জানালেন, সামনে বেশ কিছুদিনের লম্বা ছুটি চেয়েছিলেন অভিষেক সপরিবারে বেড়াতে যাবেন বলে। লীনা গাঙ্গুলির সাথে এই ছুটি নিয়ে ঝামেলাও হয়েছে, তিনি বলেছেন এতদিন ছুটি নিলে কাজ চলবে কীভাবে? লীনা দেবীকে উত্তরে গুনগুনের ড্যাডি সাফ জানিয়েছিলেন, “ম্যাডাম ছুটি আমাকে দিতেই হবে। তাই বলে আমায় কাজ থেকে বাদ দিয়ে দেবেন না। এরকম নয় যে আপনার সঙ্গে কাজ না করলে ইন্ডাস্ট্রিতে আমি আর কাজ পাবো না। কিন্তু আমি আপনাদের প্রযোজনা সংস্থায় কাজ করতে চাই।”

গলা বুজে আসে লীনার। তিনি জানান, সামনে লম্বা ছুটি নিয়েছিলেন অভিষেক, টিকিট পর্যন্ত কেটে ফেলেছিলেন সপরিবারে ঘুরতে যাবেন বলে, কিন্তু তার আগেই লম্বা ছুটি নিয়ে নিলেন অভিষেক।

Abhishek Chatterjee passes away

 

যেমনটা জানা যাচ্ছে, বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই পেটের সমস্যায় ভুগছিলেন অভিনেতা। তবে শারীরিক অসুস্থতা থাকলেও লাইট ক্যামেরা অ্যাকশন ছিল প্রাণ, তাই কাজ চালিয়ে গিয়েছেন। সহ অভিনেতা ভরত কলের বলেন, মঙ্গলবার শুটিং চলাকালীন অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন অভিষেক। ফুড পয়জনিং এর কারণে ভালোরকম অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। তবে কাজ বন্ধ করেননি, অসুস্থতা নিয়েই শুটিং চালিয়ে গিয়েছেন।

ষ্টার জলসার নতুন রিয়্যালিটি শো ‘ইসমার্ট জোড়ি’র জন্য চলছিল শুটিং। সেই সময় অসুস্থ হয়ে পরে, বমিও করেন। ব্লাড প্রেসার কমে হয়ে যায় ৮০, তৎক্ষণাৎ ব্ল্যাক কফি খাওয়ানো হয়েছিল অভিনেতাকে।  বাড়িতেই চলছিল চিকিৎসা। বাড়িতে গিয়েও খুব একটা সুস্থ হননি অভিনেতা। স্যালাইনের ব্যবস্থা করা হয়েছিল বাড়িতেই। কিন্তু বুধবার রাত কাটতে না কাটতেই সব শেষ। প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডের বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন অভিনেতা।

Related Articles

Back to top button